Cloth

গরমে সুতি কাপড়ের উপকারিতা

ভ্যাপসা গরম প্রচন্ড রোদ, সেই সাথে হালকা-পাতলা বৃষ্টির ছোঁয়া, সব মিলিয়ে অনুভূতি একটাই–-গরম আর গরম। ঋতু পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে মানুষের অন্য সব অভ্যাসের পাশাপাশি পোশাক আশাকেও এসেছে নানা পরিবর্তন। কারণ গরমে পোশাক হতে হবে আরামদায়ক। 

আমরা জানি, গরম শব্দটা শুনতেই কেমন যেন একটা অস্বস্তি অনুভূতির আবির্ভাব ঘটে। বলা যায়, গরম মানেই হলো একটু স্বস্তির খোঁজ, আরামের আয়োজন। তাই এই গরমে মনের শান্তির জন্য, একটু আরামে থাকার জন্য মানুষ খুঁজে বেড়ায় আরামদায়ক পোশাক। 

সেই পোশাকের জন্য কেউ ঢু মেরে আসছে ফ্যাশন হাউসে, আবার কেউ টেইলার্সের দোকান থেকে তৈরি করে নিচ্ছে সুতি কাপড়ের পোশাক। 

আমাদের অনেকের ধারণা গরমে সুতি কাপড় পড়লে স্বস্তি মিলে। কিন্তু প্রকৃত অর্থে কেমন হওয়া উচিত গরমের পোশাক? সত্যিই কি, গরমে সুতি কাপড়ের উপকারিতা রয়েছে? সুতি কাপড় পড়লে গরমে কেমন অনুভব হয়? আদৌ কি গরমে পাতলা সুতি কাপড়ের পোশাক পরলে গরম কম লাগবে? আর যদি তাই হয়, তাহলে কেন?

আমাদের আজকের এই আর্টিকেলে আমরা আপনাদেরকে এ প্রসঙ্গেই জানাবো। তাহলে চলুন, কথা না বাড়িয়ে আজকের এই ছোট্ট আর্টিকেলের মাধ্যমে আমরা জেনে নেই, গরমে সুতি কাপড়ের উপকারিতা সম্পর্কে। 

গ্রীষ্মের প্রস্তুতি, গরমের আদর্শ কাপড় সুতি

শীত পেরিয়ে যখন গরম চলে আসে, তখন মানুষ আরামের আশায় পোষাক-আশাকের পরিবর্তন ঘটায়। আর তাছাড়াও পোশাক মানুষের ব্যক্তিত্ব প্রকাশের একটি মাধ্যম। তাই কোন সময় কোন ধরনের পোশাক পড়তে হবে –এ বিষয়ে বেশিরভাগ মানুষ অনেক বেশি সতর্ক। 

পোশাকের মাধ্যমে আপনি যেমন নিজেকে অন্যের সামনে প্রকাশ করতে পারবেন আপনি কতটা স্মার্ট, ঠিক তেমনি আপনি কতটা স্বস্তিতে আছেন সেটাও বোঝানো যাবে এই পোশাকের মাধ্যমে। তাই গরমে স্বস্তি দিতে পারে এমন পোশাকই পড়া উচিত। আমরা অনেকেই বলে থাকি, গরমের জন্য আদর্শ পোশাক সুতি কাপড়ের তৈরিকৃত পোশাকগুলো। আপনি কি জানেন, কেন সুতি কাপড় গরমের জন্য আদর্শ পোশাক? কেনই বা বলা হয়ে থাকে সুতি আরামদায়ক পোশাকের মধ্যে অন্যতম সেরা। চলুন পরবর্তী পয়েন্টে জেনে নেই এর বিস্তারিত। 

গরমে সুতি কাপড়ের উপকারিতা কি?

গরমের দিনে সুতি কাপড় বেশ আরামদায়ক ও প্রশান্তি এনে দেয়। অন্য যেকোনো কাপড়ের তুলনায় এই কাপড় সবসময়ই আরামদায়ক। আর এটা শুধু মুখের কথা নয়, ইতোমধ্যে বিশেষজ্ঞ ডাক্তাররাও বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে এটা জানতে পেরেছেন। আর তাই এই গরমে আরামে থাকতে, সেই সাথে শারীরিক-মানসিক দুই ধরনের প্রশান্তি পেতে ডাক্তাররা সচরাচর সুতি কাপড় পড়তে বলেন। 

এখন কথা হলো, গরমে সুতি কাপড়ের উপকারিতা হিসেবে কি কি পাওয়া যায়? এটি পড়লে কেন আরামদায়ক ও প্রশান্তি মেলে? এর কারণই বা কি?. যারা এমন প্রশ্ন সচরাচর করে থাকেন তাদেরকে বলছি।

এর কারণ হলো, সুতি কাপড় যেকোনো আবহাওয়ার জন্য পারফেক্ট। শুধু তাই নয়, এই কাপড়ের বেশ কিছু উপকারিতা রয়েছে। সেগুলো হলো:

  • সুতি কাপড় যেকোনো আবহাওয়ার জন্য সবচেয়ে উপযোগী।
  • সুতি কাপড় খুব ভালোভাবে ঘাম চুষে নেয়। এটা উচ্চ শোষণ ও বায়ু চলাচল ক্ষমতা সম্পূর্ণ একটি কাপড়।
  • ওজনের দিক দিয়ে অনেক হালকা পাতলা, তাই গরমে পড়ে থাকাটা অনেক ইজি।
  • এই কাপড় পড়ে স্বাচ্ছন্দে যেকোনো কাজ করা যায়। 
  • সুতি কাপড় পরার ফলে গরম কম লাগে।
  • শীত অথবা গ্রীষ্ম সবসময় সুতি কাপড় ভালোভাবে আবহাওয়ার সাথে মানিয়ে নিতে পারে। 
  • এলার্জি বা ত্বকের যেকোনো সমস্যা থেকে রক্ষা পেতে সুতি কাপড় অনেক বেশি কার্যকরী। 

এক কথায়, অন্য সকল কাপড়ের চাইতে সুতি কাপড় অনেক বেশি কমফোর্টেবল। আর তাই গরমে সুতি কাপড়ের উপকারিতা অনেক বেশি। কারণ গরমকাল মানেই অস্বস্তির সময়, বিরক্তির সময়। আর এই সময়টাকে আরও বেশি বিরক্তিকর করে তুলতে পারে পোশাক। আর যেহেতু সুতি পোশাক যেকোনো আবহাওয়ার সাথে মানিয়ে নিতে সক্ষম, তাই গরমে সুতি কাপড়ের গুরুত্ব, প্রয়োজনীয়তা এবং উপকারিতা অতুলনীয়। 

সুতি কাপড় চেনার উপায়

এতক্ষণ আমরা জানলাম, গরমের আদর্শ কাপড় সুতি কাপড়। সেই সাথে জানলাম এর উপকারিতা সম্পর্কে। কিন্তু এখন কথা হলো, সুতি কাপড় চিনবো কিভাবে? চলুন এ পর্যায়ে জেনে নেই সুতি কাপড় চেনার সহজ কিছু উপায় সম্পর্কে। 

প্রথম পরীক্ষা

প্রথমত আপনি যে কাপড়টি কেনার জন্য মনে মনে চিন্তা করেছেন সেটি হাতে নিয়ে অল্প কিছু অংশ মুচড়ে ছেড়ে দিন। যদি মুচড়ানো ভাঁজ পড়া অংশটি ছেড়ে দেওয়ার পর আগের মুচড়ানো ভাঁজ করা অবস্থা বজায় থাকে তাহলে বুঝতে পারবেন আপনার বাছাই করা পোশাকটি সুতি। 

দ্বিতীয় পরীক্ষা

কাপড়ের এক কোনা হতে অতি ক্ষুদ্র অংশ কেটে নিয়ে আগুনে পোড়ান। ওই অংশ যদি ছাইয়ের মত হয়ে যায় তবে নিশ্চিত যে আপনার কিনে আনা কাপড়টি সুতি। আর যদি তা না হয় তাহলে ভেজাল আছে।

তৃতীয় পরীক্ষা

আপনি যে কাপড়টি নিচ্ছেন সেটা সুতি কিনা বোঝার জন্য কাপড়ের লম্বালম্বি এবং আড়াহারি দিক থেকে একটি সুতা বের করে নিতে পারেন। এরপর সুতা দুটিকে পৃথকভাবে টেনে ছেড়ার চেষ্টা করুন। যদি আপনার সেই সুতা গুলো সহজেই ছিড়ে যায় তাহলে বুঝবেন এটা সুতি কাপড়। কারণ সুতি কাপড়ের সুতো খুব সহজেই ছিড়ে যায়। আর যদি পলিস্টার হয়ে থাকে, তাহলে যেতে গেলে লম্বার মত হয়ে যায়। আর ছেরাটা অনেকটাই কষ্টকর হয়।

আর তাছাড়াও যারা অনেক বেশি অভিজ্ঞ তারা সুতি কাপড় চোখের আন্দাজেও কিনে ফেলতে পারেন খুব সহজেই। তবে আপনি যদি অনভিজ্ঞ হয়ে থাকেন তাহলে আমাদের দেওয়া এই টিপস গুলো ফলো করে অবশ্যই প্রকৃত সুতি কাপড় নির্বাচন করতে পারবেন। 

গরমকালে সুতি কাপড়ের কোন কোন পোশাক উপযুক্ত?

আমাদের মাঝে অনেকেরই ধারণা সুতি কাপড়ের ফ্যাশনটা ঠিকঠাক চলে না, অনেকটাই নষ্ট হয়ে যায়। এ ধারণাটা একদম ভুল। সত্যি বলতে সুতি মানিয়ে যায় সব জায়গাতেই। সেটা কোন বিয়ের অনুষ্ঠান হোক, বার্থডে পার্টি হোক, ইউনিভার্সিটি ক্লাস হোক। শুধু তাই নয়, পূজা বড়দিন পার্বণ এমনকি ট্রাভেলসহ সব ইভেন্টেই সুতির বিকল্প হয় না। আর এর কারণ একটাই, সুতির সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে আরাম। 

আর আমরা সবাই জানি, বাঙালিরা আর যাই হোক অনেক বেশি আরাম প্রিয়। তাই গরমে সুতি কাপড়ের চাইতে ভালো বন্ধু তাদের আর দ্বিতীয়টি নেই। কিন্তু তবুও অনেকেই বুঝে উঠতে পারে না কি ধরনের পোশাক পরবে। আসলে সুতির যে কোন পোশাক পড়ে আরামে থাকা যায়। আর এটা স্টাইল বা ফ্যাশন কোনটাই নষ্ট করে না। 

মহিলারা যারা শাড়ি পড়েন তারা সুতির শাড়ি পড়তে পারবেন। আবার যারা সালোয়ার বা মেক্সি পড়েন তারাও সুতির তৈরি এই পোশাকটি পরিধান করতে পারবেন। আর সত্যি বলতে, যারা শাড়ি পড়তে ভালোবাসেন কিংবা প্রতিদিন শাড়ি পড়ে থাকেন তাদের জন্য সুতি শাড়ির চাইতে ভালো কাপড় আর দ্বিতীয়টি নেই। বৃষ্টির ভাবসা ভাব, প্রচন্ড তাপ সবকিছুতেই একমাত্র সুতি কাপড় পারফেক্ট। আর এটিই সমাধান দিতে পারে কারণ, সুতি কাপড় খুব সহজেই ঘাম শুসে নেয়। 

আর তাছাড়াও ছোট শিশুদের ক্ষেত্রেও এটা অনেক বেশি কার্যকরী। তাই আপনি আপনার শিশুকে এই গরমে অবশ্যই সুতি কাপড় পরিধান করান। এতে সে আরাম পাবে এবং সুস্থ থাকবে। শুধু তাই নয়, গরমকালে আমাদের শরীরে যে বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয় এলার্জি বা চুলকানি জনিত সেটা হওয়ার সম্ভাবনাও অনেকটাই কমে যাবে। তাই এই গরমে সুতি কাপড় নিজে পড়তে এবং অন্যকে পড়াতে অবশ্যই ভুল করবেন না। 

আর হ্যাঁ, গরমে অবশ্যই সুতি কাপড় নির্বাচনের পাশাপাশি হালকা রঙের উপর প্রাধান্য দিবেন। এতে করে গরম আরও অনেক বেশি কম অনুভব হবে। আপনার জন্য সবচেয়ে আদর্শ কালার হবে, 

  • সাদা
  • আকাশি 
  • গোলাপি
  • হালকা বেগুনি
  • নীল 
  • লেমন কালার

সেই সাথে মনে রাখবেন ফ্যাশনে ফতুয়া কিন্তু বেশ জনপ্রিয়। তাই গরমে নারী-পুরুষ সবাই জিন্সের সঙ্গে বেছে নিতে পারেন হালকা রঙের বিভিন্ন সুতার কারুকাজ করা ফতোয়া অথবা টি শার্ট। আর মেয়েরা ফতুয়ার সঙ্গে প্লাজো, স্কার্ট অথবা সেলোয়ার পড়তে পারেন। 

তবে নারীদের জন্য এই গরমে স্বস্তি পেতে হালকা শাড়ির মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং আরামদায়ক শাড়ী গুলো হলো:

  • টাঙ্গাইলের শাড়ি
  • সুতির ব্লক 
  • এপ্লিকের শাড়ি
  • সাপা শাড়ি
  • ব্লক বাটিকের সুতি ট্রেন্ডিং শাড়ী 
  • পাতলা শাটিন অথবা জর্জেটের শাড়ি।

পরিশেষে

তো পাঠক বন্ধুরা এই ছিল আমাদের আজকের গরমের সুতি কাপড়ের উপকারিতা সংক্রান্ত আলোচিত আর্টিকেল। আশা করি এই আর্টিকেলটি থেকে আপনারা এতটুকু হলেও উপকৃত হয়েছেন।। তো যদি কোন প্রশ্ন বা মতামত থেকে থাকে আমাদের কমেন্ট করে জানাবেন সেইসাথে অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইটটি নিয়মিত ভিজিট করতে সাবস্ক্রাইব করে রাখবেন। সবাই ভাল থাকবেন সুস্থ থাকবেন। আল্লাহ হাফেজ। 

2 thoughts on “গরমে সুতি কাপড়ের উপকারিতা

  1. Right here is the perfect blog for anyone who really wants to understand this topic. You know so much its almost hard to argue with you (not that I really will need toÖHaHa). You certainly put a new spin on a topic which has been written about for ages. Great stuff, just wonderful!

Leave a Reply

Your email address will not be published.